ত্বক ফর্সা করবে কাজুবাদাম

Loading...

কাজুবাদাম প্রাকৃতিকভাবে ত্বকের লাবণ্যময় আভা ফুটিয়ে তুলতে ভালো কাজ করে থাকে।
সুতরাং ত্বক ফর্সা করতে আরো কিছু প্রাকৃতিক উপাদানের সঙ্গে কাজুবাদাম মিশিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

তাহলে জেনে নিন কোন কোন উপাদানের সঙ্গে কাজুবাদাম মেশাতে পারেন।

চিনির সঙ্গে : আপনি যদি ভাবেন যে, কাজুবাদাম ত্বকের যত্নে কিভাবে কাজ করে? তাহলে কিছু চিনি গুঁড়া, কাজুবাদাম গুঁড়া এবং পানি মিশিয়ে দেখুন।
দারুণ স্ক্রাব তৈরি হবে, যা ত্বককে প্রশমিত করে এবং একই সময়ে ত্বকের কোষের মরা ভাব দূর করতে কাজ করে।

দুধের সঙ্গে : সারা রাত কাজুবাদাম ভিজিয়ে রাখুন। সকালে পাউডারের মতো করে গুঁড়া করুন। এরপর এটি দুধের সঙ্গে মেশান এবং প্যাক হিসেবে ব্যবহার করুন। ত্বকে আলতো করে ম্যাসাজ করতে পারেন। এতে ত্বকে রক্ত সঞ্চালন বাড়বে এবং কোমল ভাব আসবে। এতে বিদ্যমান ল্যাকটিক অ্যাসিড ত্বককে ফর্সা করার কাজ করে থাকে।

মধুর সঙ্গে : মধু এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ত্বকের ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ভালো কাজ করে এবং ত্বকের মরা কোষ দূর করে থাকে। কাজুবাদামের গুঁড়াও ত্বকের মরা চামড়া দূর করে থাকে। এ দু’য়ের মিশ্রণে তৈরি প্যাক ব্যবহার করলে ত্বকের নিস্তেজ ভাব দূর হয়।

পেঁপের সঙ্গে : কাজুবাদামের গুঁড়া বাটা পেঁপের সঙ্গে অল্প পরিমাণ পানি মিশিয়ে ব্যবহার করলে ত্বকের মরা কোষ, নিস্তেজ ভাব দূর করে এবং চোয়ালের নিচে চুল বৃদ্ধি রোধ করতে বেশ ভালো কাজ করে থাকে। পেঁপেতে রয়েছে অ্যানজাইম যা ত্বকের গুঁটি গুঁটি ভাব থেকে মুক্তি দিতে সাহায্য করে।

কলার সঙ্গে : কলা প্রাকৃতিকভাবে ত্বকে পুষ্টি জোগাতে এবং ময়েশ্চারাইজ করতে কাজ করে থাকে। অর্ধেক কলার সঙ্গে কাজুবাদামের গুঁড়া মেশান। এ মিশ্রণটি ত্বকের উজ্জ্বলতা ধরে রাখতে সাহায্য করবে।

অলিভ অয়েলের সঙ্গে : ত্বকের রুক্ষ ভাব দূর করতে এটি সবচেয়ে সহজ পদ্ধতি। কাজুবাদাম গুঁড়ার সঙ্গে অলিভ অয়েল মিশিয়ে ব্যবহার করলে একটু বেশিই দীপ্তিময় ত্বক পাওয়া যাবে।

Comments

Loading...